কুড়িগ্রাম জেলার চিত্রকর্ষক স্থান সমূহ

নওগাঁ জেলার দর্শনীয় স্থান সম্পর্কে জানুনআসসালামু আলাইকুম, সুপ্রিয় পাঠক কুড়িগ্রাম জেলার চিত্রকর্ষক স্থান সমূহ ও কুড়িগ্রাম নামকরণের ইতিহাস সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে চাইলে আমাদের এই আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ মনোযোগ দিয়ে পড়ুন।
কুড়িগ্রাম জেলার চিত্রকর্ষক স্থান সমূহ
কেননা আজকের এই আর্টিকেলে আমরা জানিয়েছি কুড়িগ্রাম জেলার চিত্রকর্ষক স্থান সমূহ, কুড়িগ্রাম নামকরণের ইতিহাস সহ কুড়িগ্রাম জেলার সকল তথ্য।
সূচিপত্র: কুড়িগ্রাম জেলার চিত্রকর্ষক স্থান সমূহ

উপস্থাপনা

প্রিয় পাঠক, আমাদের আজকের এই আর্টিকেলের মাধ্যমে আপনি জানতে পারবেন কুড়িগ্রাম জেলার চিত্রাকর্ষক স্থান সমূহ ও কুড়িগ্রাম নামকরণের ইতিহাস সহ কুড়িগ্রাম জেলার সকল তথ্য। তাছাড়াও কুড়িগ্রাম জেলার বিখ্যাত ব্যক্তিত্ব, কুড়িগ্রাম জেলার অর্থনীতি ও শিক্ষা ব্যবস্থা সহ কুড়িগ্রামের যাবতীয় তথ্য জানানো হয়েছে আমাদের এই আর্টিকেলে।

কুড়িগ্রাম নামকরণের ইতিহাস

কুড়িগ্রাম জেলার নামকরণ নিয়ে বিভিন্ন মতভেদ রয়েছে। তবে একাধিক সমর্থনযোগ্য তথ্য হলো মহারাজা বিশ্ব সিংহ কুড়িটি জেলে পরিবারকে উচ্চ শ্রেণীর হিন্দু রূপে স্বীকৃতি দিয়ে ওই অঞ্চলে প্রেরণ করেন। আর সেই কুড়িটি পরিবারের আগমনের কাহিনী থেকে কুড়িগ্রাম জেলার নামকরণ করা হয়।

বিলু কবির তার বাংলাদেশের জেলা নামকরণের ইতিহাস বইয়ে উল্লেখ করেছেন যে কুড়িটি মেচ তৈল জিবি পরিবারের বসতি ছিল বলে সেই জায়গার নামকরণ করা হয় কুড়িগ্রাম। অন্য এক সূত্রে জানা যায় প্রাচীন আমলে এই এলাকা রঙ্গপুর অর্থাৎ কোচবিহার রাজ্যের অন্তর্গত ছিল। কোচবিহারের বাসিন্দাদের বলা হতো কোচ। তার পাশাপাশি তারা ছিল তিওড় গোষ্ঠীবিশেষ।
নদীতে মাছ ধরে তা বিক্রি করা ছিল তাদের পেশা। এবং সেই সুবিধা বঞ্চিত কুড়িটি পরিবারকে এখানে প্রেরণ করা হয়েছিল বসতি স্থাপনের জন্য। আর সেই কুড়িটি কোচ পরিবারের কারণে কুড়িগ্রাম নামকরণ করা হয় বলে জানা গেছে। আবার অনেকে বলে সেই অঞ্চলে কুরি নামক আদিবাসীদের বসবাস ছিল সেই সময়ে। আর সেই কুরি শব্দ থেকে কুড়িগ্রাম শব্দের উৎপত্তি হয়েছে।

কুড়িগ্রাম জেলার অবস্থান ও আয়তন

কুড়িগ্রাম জেলা বাংলাদেশের উত্তর অঞ্চলে অবস্থিত রংপুর বিভাগের একটি প্রশাসনিক অঞ্চল। কুড়িগ্রাম জেলার উত্তরে লালমনিরহাট জেলা, দক্ষিনে গাইবান্ধা জেলা ও জামালপুর জেলা, পূর্বে ভারতের আসাম ও পশ্চিমে লালমনিরহাট জেলারংপুর জেলা অবস্থিত।
বর্তমানে কুড়িগ্রাম জেলার আয়তন হলোঃ ২,২৪৫.০৪ বর্গ কিলোমিটার।

কুড়িগ্রাম জেলার অর্থনীতি

কুড়িগ্রাম জেলার অর্থনীতি মূলত কৃষির উপর নির্ভরশীল। বিশেষ করে ধান, গম, আলু, পাট, তামাক, সরিষা, আখ, ভুট্টা, বাদাম, পেঁয়াজ উল্লেখযোগ্য পরিমাণে উৎপাদন হয়। পাশাপাশি কুড়িগ্রাম জেলায় মাঝারি আকারের শিল্প প্রতিষ্ঠান রয়েছে। যেখানে মেহনতী মানুষ কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করে থাকে।
এবং দেশের বেকারত্ব দূর করতে সেসব শিল্প প্রতিষ্ঠানের গুরুত্ব অপরিসীম। বিশেষ করে কুড়িগ্রাম জেলার কুঠির শিল্পের সুনাম ছড়িয়ে আছে সারা বাংলাদেশে। বর্তমানে কুড়িগ্রাম জেলায় ৮৬২ টি কুটির শিল্প প্রতিষ্ঠান রয়েছে।

কুড়িগ্রাম জেলার উপজেলা

কুড়িগ্রাম জেলায় বর্তমানে ৯ টি উপজেলা ও ১১ টি থানা রয়েছে।
উপজেলা গুলো হলোঃ
  • রৌমারী উপজেলা
  • রাজারহাট উপজেলা
  • ভুরুঙ্গামারী উপজেলা
  • ফুলবাড়ী উপজেলা
  • নাগেশ্বরী উপজেলা
  • চিলমারী উপজেলা
  • চর রাজিবপুর উপজেলা
  • কুড়িগ্রাম সদর উপজেলা
  • উলিপুর উপজেলা
বর্তমানে কুড়িগ্রাম জেলায় সংসদীয় আসন রয়েছে ৪ টি।

কুড়িগ্রাম জেলার পৌরসভার

বর্তমানে কুড়িগ্রাম জেলায় পৌরসভা আছে ৩ টি
সেগুলো হলোঃ
  • কুড়িগ্রাম পৌরসভা
  • নাগেশ্বরী পৌরসভা
  • উলিপুর পৌরসভা

কুড়িগ্রাম জেলার ইউনিয়ন পরিষদ

বর্তমান সময়ে কুড়িগ্রাম জেলার ৯ টি উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদ রয়েছে ৭২ টি। যেখান থেকে সাধারণ মানুষ প্রতিনিয়ত নানান সুযোগ সুবিধা ভোগ করে থাকেন। এছাড়াও কুড়িগ্রাম জেলায় মৌজা আছে ৬৪৭ টি, এবং গ্রাম আছে ১,৮৭২ টি।
কোন উপজেলায় কয়টি ইউনিয়ন পরিষদ রয়েছে তা জানানো হলোঃ
উলিপুর উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদ রয়েছে ১৩ টি
সেগুলো হলোঃ
  • থেতরাই ইউনিয়ন পরিষদ
  • তবকপুর ইউনিয়ন পরিষদ
  • সাহেবের আলগা ইউনিয়ন পরিষদ
  • পান্ডূল ইউনিয়ন পরিষদ
  • হাতিয়া ইউনিয়ন পরিষদ
  • গুনাইগাছ ইউনিয়ন পরিষদ
  • ধরণীবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদ
  • ধামশ্রেণী ইউনিয়ন পরিষদ
  • দলদলিয়া ইউনিয়ন পরিষদ
  • বজরা ইউনিয়ন পরিষদ
  • বুড়াবুড়ি ইউনিয়ন পরিষদ
  • বেগমগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদ
  • দুর্গাপুর ইউনিয়ন পরিষদ
কুড়িগ্রাম সদর উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদ রয়েছে ৮ টি
সেগুলো হলোঃ
  • যাত্রাপুর ইউনিয়ন পরিষদ
  • পাঁচগাছি ইউনিয়ন পরিষদ
  • মোগলবাসা ইউনিয়ন পরিষদ
  • বেলগাছা ইউনিয়ন পরিষদ
  • ঘোগাদহ ইউনিয়ন পরিষদ
  • ভোগডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদ
  • হলোখানা ইউনিয়ন পরিষদ
  • কাঁঠালবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদ
চররাজিবপুর উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদ রয়েছে ৩ টি
সেগুলো হলোঃ
  • মোহনগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদ
  • কোদালকাটি ইউনিয়ন পরিষদ
  • রাজিবপুর ইউনিয়ন পরিষদ
চিলমারী উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদ রয়েছে ৬ টি
সেগুলো হলোঃ
  • রানীগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদ
  • থানাহাট ইউনিয়ন পরিষদ
  • রমনা ইউনিয়ন পরিষদ
  • চিলমারি ইউনিয়ন পরিষদ
  • নয়ারহাট ইউনিয়ন পরিষদ
  • অষ্টমীর চর ইউনিয়ন পরিষদ
নাগেশ্বরী উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদ রয়েছে ১৪ টি
সেগুলো হলোঃ
  • নারায়ণপুর ইউনিয়ন পরিষদ
  • বল্লভেরখাস ইউনিয়ন পরিষদ
  • কচাকাটা ইউনিয়ন পরিষদ
  • কেদার ইউনিয়ন পরিষদ
  • বেরুবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদ
  • কালিগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদ
  • নুন খাওয়া ইউনিয়ন পরিষদ
  • ভিতরবন্ধ ইউনিয়ন পরিষদ
  • হাসনাবাদ ইউনিয়ন পরিষদ
  • নেওয়াশী ইউনিয়ন পরিষদ
  • বামন ডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদ
  • সন্তোষপুর ইউনিয়ন পরিষদ
  • রায়গঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদ
  • রামখানা ইউনিয়ন পরিষদ
ফুলবাড়ী উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদ রয়েছে ৬ টি
সেগুলো হলোঃ
  • বড়ভিটা ইউনিয়ন পরিষদ
  • কাশিপুর ইউনিয়ন পরিষদ
  • ফুলবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদ
  • ভাঙ্গামোড় ইউনিয়ন পরিষদ
  • নাওডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদ
  • শিমুলবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদ
ভুরুঙ্গামারী উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদ রয়েছে ১০ টি
সেগুলো হলোঃ
  • রঙ্গসোনাহাট ইউনিয়ন পরিষদ
  • চর ভুরুঙ্গামারী ইউনিয়ন পরিষদ
  • বলদিয়া ইউনিয়ন পরিষদ
  • আন্ধারিঝাড় ইউনিয়ন পরিষদ
  • জয়মনিরহাট ইউনিয়ন পরিষদ
  • ভুরুঙ্গামারী ইউনিয়ন পরিষদ
  • পাইকের ছড়া ইউনিয়ন পরিষদ
  • তিলাই ইউনিয়ন পরিষদ
  • শিলখুড়ি ইউনিয়ন পরিষদ
  • পাথরডুবি ইউনিয়ন পরিষদ
রাজারহাট উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদ রয়েছে ৭ টি
সেগুলো হলোঃ
  • নজিম খান ইউনিয়ন পরিষদ
  • উমর মজিদ ইউনিয়ন পরিষদ
  • বিদ্যানন্দ ইউনিয়ন পরিষদ
  • চাকিরপশার ইউনিয়ন পরিষদ
  • রাজারহাট ইউনিয়ন পরিষদ
  • ছিনাই ইউনিয়ন পরিষদ
  • ঘড়িয়ালডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদ
রৌমারী উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদ রয়েছে ৬ টি
সেগুলো হলোঃ
  • রৌমারী ইউনিয়ন পরিষদ
  • জাদুর চর ইউনিয়ন পরিষদ
  • শৌলমারী ইউনিয়ন পরিষদ
  • দাতভাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদ
  • বন্দবেড় ইউনিয়ন পরিষদ
  • চর শৌলমারী ইউনিয়ন পরিষদ

কুড়িগ্রাম জেলার শিক্ষা ব্যবস্থা

সাম্প্রতিক সময়ে ব্যাপক শিক্ষার প্রসার ঘটেছে সারা বাংলাদেশ। কুড়িগ্রাম জেলাতেও শিক্ষা প্রসারের ভূমিকা চোখে পড়ার মতো। কেননা বর্তমান সময়ে অনেক নামিদামি সরকারি বেসরকারি নানান শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলা হয়েছে কুড়িগ্রাম জেলায়। বর্তমানে কুড়িগ্রাম জেলার শিক্ষার হার শতকরা ৬৫%। কুড়িগ্রাম জেলার সরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো হলোঃ
  • কুড়িগ্রাম কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়
  • কুড়িগ্রাম সরকারি কলেজ
  • কুড়িগ্রাম পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট
  • কুড়িগ্রাম সরকারি মহিলা কলেজ
  • ভুরুঙ্গামারী সরকারি কলেজ
  • উলিপুর সরকারি কলেজ
  • ফুলবাড়ি ডিগ্রী কলেজ
  • সাইফুর রহমান সরকারি কলেজ
  • নাগেশ্বরী সরকারি কলেজ
  • রাজিবপুর সরকারি কলেজ
  • রৌমারী সরকারি কলেজ
  • চিলমারী সরকারি কলেজ

কুড়িগ্রাম জেলার চিত্রকর্ষক স্থান সমূহ

অনেক প্রাচীন আমল থেকেই কুড়িগ্রাম জেলায় নানান নিদর্শন গড়ে তোলা হয়েছিল। যা বর্তমানে পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে ভূমিকা রাখছে। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মানুষ কুড়িগ্রাম জেলায় আসে সেসব নিদর্শন দেখার জন্য। কুড়িগ্রাম জেলার দর্শনীয় স্থানের মধ্যে রয়েছেঃ
  • ধরলা সেতু
  • সোনাহাট স্থলবন্দর
  • প্রথম আলো চর
  • দাসেরহাট কালী মন্দির
  • কুড়িগ্রামের প্রথম শহীদ মিনার (মাজিদা কলেজে অবস্থিত)
  • শাপলা চত্বর
  • ঘোষপাড়া মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিফলক
  • উত্তরবঙ্গ জাদুঘর
  • চান্দামারী মসজিদ
  • কোটেশ্বর শিব মন্দির
  • পাঙ্গা জমিদার বাড়ি
  • ঘড়িয়ালডাঙ্গা জমিদার বাড়ি
  • উলিপুর মুন্সিবাড়ি
  • ধামশ্রেণী মন্দির
  • জালার পীরের দরগাহ
  • উদুনা-পুদুনার বিল
  • বেহুলার চর
  • ভেতরবন্দ জমিদার বাড়ি
  • সোনাহাট ব্রিজ
  • ফুলসাগর
  • নাওডাঙ্গা জমিদার বাড়ি
  • চতুর্ভুজ সেনপাড়া শিব মন্দির
  • কালজানি ঘাট
  • চিলমারী বন্দর
  • জয়মনিরহাট জমিদার বাড়ি
  • মাধাই খাল কালী মন্দির
  • আমতলী সর্বজনীন দুর্গা মন্দির
  • তুরা বন্দর
  • রাজিবপুর সীমান্ত হাট
  • ব্রক্ষপুত্র নদ

কুড়িগ্রাম জেলার উল্লেখযোগ্য ব্যক্তিত্ব

সময়ের ব্যবধানে অনেক নামি-দামি মানুষের জন্ম হয়েছিল কুড়িগ্রাম জেলায়। যারা নিজেদের কর্মের মাধ্যমে সারাদেশে পরিচিত লাভ করেছিল। তাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলোঃ
  • নাজমুল হুদা পারভেজ, লেখক, সাংবাদিক ও শিক্ষক
  • হাবিবুর রহমান, প্রকৌশলী
  • জাকির হোসেন, সাবেক মন্ত্রী প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়
  • অজিত রায়, স্বাধীনতা পুরস্কারপ্রাপ্তত
  • ভুপতি ভূষণ বর্মা, ভাওয়াইয়া ভাস্কর
  • ভবানী পাঠক, ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলনের সন্ন্যাসীদের নেতা
  • কছিম উদ্দিন, ভাওয়াইয়া সঙ্গীত শিল্পী
  • শামসুল হক, বাঙালি সাহিত্যিক
  • তাজুল ইসলাম চৌধুরী, সাবেক মন্ত্রী এবং জাতীয় সংসদের সাবেক হুইপ ও চিফ হুইপ
  • গোলাম হাবিব দুলাল, সাবেক চেয়ারম্যান বাংলাদেশ সততা পার্টি
  • এ.কে.এম মাইদুল ইসলাম, সাবেক মন্ত্রী ও চেয়ারম্যান কাশেম গ্রুপ
  • আক্কাস আলী সরকার, চিকিৎসক, শিল্পপতি, রাজনীতিবিদ এবং চেয়ারম্যান প্রাইম গ্রুপ
  • রমণীকান্ত নন্দী, শহীদ বুদ্ধিজীবী
  • আমজাদ হোসেন তালুকদার, মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক ও রাজনীতিবিদ
  • তারামন বিবি, বীর প্রতীক খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা
  • শামসুল হক চৌধুরী, মুক্তিযোদ্ধা ও কুড়িগ্রাম জেলার সাবেক গভর্নর

শেষ কথা

প্রিয় পাঠক, আজকের আর্টিকেলে আমরা জানিয়েছি কুড়িগ্রাম জেলার চিত্রকর্ষক স্থান সমূহ ও কুড়িগ্রাম নামকরণের ইতিহাস সহ কুড়িগ্রাম জেলার সকল তথ্য। আমাদেরই আর্টিকেলটি যদি আপনার ভালো লেগে থাকে তাহলে এটি অন্যদের সাথে শেয়ার করুন। যেকোন শিক্ষনীয় বিষয় জানতে আমাদের ওয়েবসাইটের সাথেই থাকুন। আমাদের আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ পড়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি আইটির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url