শীতকালে শরীরে যেসব সমস্যা দেখা দেয়

 শীতকালে শরীরে যেসব সমস্যা দেখা দেয় ও শীতকালে ত্বকের যত্ন নেওয়ার উপায় সম্পর্কে জানতে হলে আমাদের এই আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ মনোযোগ দিয়ে পড়ুন।শীতকালে শরীরে কি কি সমস্যা দেখা দেয় তা জানুন

আজকের আর্টিকেলে আমরা জানানোর চেষ্টা করেছি যে শীতে মানব দেহে কি কি সমস্যা দেখা দেয় শীতে মানুষের ত্বকের কি ভাবে যত্ন নিতে হয় ও শীতে প্রয়োজনীয় খাবার কি কি খেতে হবে শরীর ঠিক রাখার জন্যে।

ভূমিকা

শীতকালে মানুষের শরীরে নানা রকম সমস্যা দেখা দেয়, তার মধ্যে অন্যতম হলো শারীরিক সমস্যা ও ত্বকের সমস্যা। আমরা এই আর্টিকেলের মধ্যে আলোচনা করেছি যে, আপনি কিভাবে শীতকালে নিজের শরীর ও ত্বক ভালো রাখতে পারবেন ও যত্ন নিতে পারবেন। তাই শরীর ও ত্বক কিভাবে যত্ন নিতে হয় সেটা জানার জন্য আমাদের এই আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ মনোযোগ দিয়ে পড়ুন।

শীতকালে শরীরে যেসব সমস্যা দেখা দেয়

শীত এলেই বদলে যায় প্রকৃতি, বদলে যায় হাওয়া, এটা স্বাভাবিক একটা বিষয় আগের মত কিছুই আর ঠিক থাকে না। সবকিছু একদম পাল্টে যায় গাছের পাতা সব ঝরে পড়ে, নদীর পানি স্থির হয়ে যায়, সব জায়গায় একদম থমথমে হয়ে যায় আর তার প্রভাব পড়ে সাধারণ মানুষের উপর। রুক্ষ হয়ে ওঠে ত্বক খসখস করে পুরো শরীর।

বিশেষ করে বয়স্ক মানুষ ও ছোট শিশুরা বেশি অসুস্থ হয়ে পড়ে শীতকালে। সর্দি জ্বরের প্রবণতা অনেক বেশি থাকে শীতকালে, তার পাশাপাশি বাতাসে ধূলিকণা বেশি থাকার কারণে পুরো শরীর শুষ্ক হয়ে যায় যার ফলে হাত-পা ফাটা, ঠোঁট ফাটা, সহ নানা রকমের সমস্যা দেখা দেয়। বিশেষ করে শিশু ও বয়স্ক লোকেরা শীত মৌসুমে বেশি সমস্যার সম্মুখীন হয়।

শীতকালে শরীরের যত্ন নেওয়ার উপায়

স্বাভাবিকভাবে প্রকৃতি কখনোই শীতের বিরুদ্ধে সুরক্ষা নিতে পারে না তাই তাকে অপেক্ষা করতে হয় নব যৌবন লাভের জন্য বসন্তকাল পর্যন্ত। কিন্তু মানুষ নিজের সুরক্ষা নিতে পারে তার জন্য তাকে কিছু নিয়ম মেনে চলাফেরা করতে হয়, শীতকালে যদি মানুষ নিয়ম মেনে চলাফেরা করতে পারে তবে তার দেহের সৌন্দর্যহানি হয় না।


যেমন সুষম খাবার খেতে হবে, যেসব খাবারে প্রোটিন ভিটামিন বেশি থাকে সেসব খাবার বেশি বেশি গ্রহণ করতে হবে। প্রতিদিন সময়মতো গোসল করতে হবে যাতে করে ধুলাবালি শরীরে না লাগে। বাসার বাইরে গেলে গরম কাপড় পড়ে যেতে হবে যাতে করে শরীরের যেন হাওয়া না লাগে বা ঠান্ডা না লাগে। শরীর সুন্দর ও মসরিন রাখার জন্য বিভিন্ন লোশন ও ক্রিম ব্যবহার করা যেতে পারে।

শীতকালে প্রয়োজনীয় খাবার গ্রহণ

শীতের সময় মানুষের শরীর ঠিক রাখার জন্য বিশেষ খাবার নির্বাচন করা প্রয়োজন। কেননা শীতে হাত-পা থেকে শুরু করে শরীরের প্রত্যেকটা অঙ্গের যত্ন একটু বেশি নিতে হয়, তার জন্য কিছু বিশেষ খাবার নির্বাচন করা অতি প্রয়োজনীয় বিষয়। যেমন শাকসবজি বেশি করে খাওয়া ফলমূল বেশি করে খাওয়া।


শীতের সময় শরীর গরম রাখার একটি বিশেষ খাবার হচ্ছে মধু। তবে তা পরিমাণমতো খেতে হবে তাছাড়া শরীরের ভালোর চেয়ে ক্ষতি বেশি হবে।


তবে এই ৬ রকমের খাবার আপনার শরিরকে সুস্থ রাখতে বেশি ভুমিকা রাখবে যেমন আমলকি, ঘি, গুড়, তিল, হলুদ, পানি।

  • আমলকি
ভিটামিন সি বেশি পরিমাণে থাকে আমলকিতে। যার জন্য আপনি আমলকি খেতে পারেন দেহ ও ত্বকের যত্নের জন্য আমলকি অনেক ভালো ভূমিকা পালন করে।
  • ঘি
অনেক মানুষ অতিরিক্ত চর্বির ভয়ে ঘি খেতে চায়না। তবে পরিমাণ মতো খেলে কোনরকম সমস্যা দেখা দেয় না। ভাত সহ নানা রকম খাবার তৈরি করতে ঘি এর ব্যবহার অনেক বেশি হয়ে থাকে। তাই শীতকালে ঘি খাওয়া শরীরের জন্য অনেক ভালো।
  • গুড়
গুড়ে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে আয়রন, জিঙ্ক, মিনারেল, সেলেনিয়মের মতো নানা উপাদান, যাতে করে শরীর অনেক গরম থাকে। বিশেষ করে কাশি থেকে রক্ষা পাওয়া হয় গুড় খাওয়ার জন্য।
  • তিল
শীতকালে শরীর গরম রাখার জন্য তিলের কোন বিকল্প নেই। তাছাড়া মানবদেহের রোগ প্রতিরোধ শক্তি বৃদ্ধি করার জন্য তিল খাওয়া আবশ্যক।
  • হলুদ
মানব দেহের আরও একটা উপকারী খাবার হলো হলুদ। হলুদে রয়েছে অ্যান্টি ভাইরাল, আন্টি ফাঙ্গাল, আন্টি ব্যাকটেরিয়াল সহ নানা উপাদান, দেহ সুস্থ রাখার জন্য গরম দুধের সঙ্গে এক চা চামচ হলুদের গুঁড়ো মিশিয়ে খেতে পারেন তার ফলে পানীয় ফ্ল সর্দি-কাশি জ্বর থেকে রক্ষা পাবেন।
  • পানি
মানব দেহ বাঁচিয়ে রাখার জন্য পানির কোন বিকল্প নেই। তবে শীতকালে পানির তৃষ্ণা তুলনামূলক অনেক কমে যায়। তাই এই সময়ে শরীরে পানি শূন্যতা দেখা দিতে পারে যার ফলে শরীরে হাইড্রেট থাকে। শরীর সুস্থ রাখতে এক গ্লাস পানির সঙ্গে এক টুকরো লেবু মিশিয়ে খেতে পারেন যা দেহকে সুস্থ রাখবে। বিশেষ করে দিনের বেলায় পানি বেশি করে পান করতে।

শীতকালে ত্বকের যত্ন নেওয়ার উপায়

আবহাওয়া গত অবস্থার কারণে শীত মৌসুমকে শরীরের সাথে খাপ খাইয়ে ত্বককে স্বাভাবিক রাখাটা অত্যন্ত কঠিন একটা কাজ। কেননা ঋতুর পরিবর্তনের সাথে সাথে ত্বকের পরিবর্তন হয়, তবে আপনি বিভিন্ন উপায়ে ত্বকের যত্ন নিতে পারেন, যেমন নিয়মিত গোসল করা, হাত-পা পরিষ্কার রাখা, বাইরে বের হওয়ার সময় পোশাক দিয়ে পুরো শরীর ঢেকে রাখা।


বিভিন্ন ক্রিম বা লোশন ব্যবহার করা, ধুলোবালি থেকে বিরত থাকা, পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা বজায় রেখে রাস্তাঘাটে চলাফেরা করা, আবার শীতকালে ত্বকের আদ্রতা বজায় রাখার জন্য মাঝে মাঝে মুখে পানির ঝাপটা দেওয়া, তাতে সহজে ত্বক শুষ্ক হবে না। গোসলের পর এবং প্রতিবার মুখ ধোয়ার পর লোশন বা ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন ভেজা অবস্থায়।

তাতে করে ত্বকের আদ্রতা বজায় থাকবে। শীতকালে মেকআপ করার সময় কোন অবস্থাতেই লিক্যুইড ফাউন্ডেশন ব্যবহার করবেন না, তাতে ত্বকের ক্ষতি হবে। শীতকালে বেশি করে ক্রিম ফাউন্ডেশন ব্যবহার করুন, তাতে ত্বক সুন্দর থাকবে। আবার অনেক মানুষ আছেন যারা শীতকালে পানি পান করার পরিমাণ কমিয়ে দেয় এটা ত্বকের জন্য খুব ক্ষতিকর।


পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি না থাকলে সারা শরীরে নানারকম সমস্যা দিতে পারে তাই ত্বক সুন্দর করার জন্য বেশি বেশি পানি পান করুন। কোন ক্রিম বা লোশন ব্যবহার করার আগে অবশ্যই সেটা সম্পর্কে ভালোভাবে জেনে নিন, মেয়াদ আছে কিনা সাইড ইফেক্ট হবে কিনা সেসব জেনে ক্রিম বা লোশন ব্যবহার করতে হবে তাছাড়া ত্বকের ক্ষতি তিন গুণ বেশি হবে।

লেখকের মন্তব্য

আজকের আর্টিকেলে আমরা জানানোর চেষ্টা করেছি যে কিভাবে আপনি শীতকালে নিজের শরীর ও ত্বকের যত্ন নিবেন। আশা করি আপনি আমাদের আর্টিকেলটি পড়ে উপকৃত হবেন এবং এটি অন্যদের সাথে শেয়ার করবেন। এ ধরনের শিক্ষনীয় বিষয় জানতে আমাদের ওয়েবসাইটের সাথেই থাকুন, এবং আমাদের আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ দেখার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি আইটির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url