ঘরোয়া ভাবে ত্বকের যত্ন নেওয়ার উপায় জানুন

ব্রণ ভালো করার ১০ টি উপায় জানুনআসসালামু আলাইকুম, সুপ্রিয় পাঠক ঘরোয়া ভাবে ত্বকের যত্ন নেওয়ার উপায় জানুন আমাদের এই আর্টিকেলে। নিজের ত্বক সুন্দর ও মসৃণ রাখার উপায় জানতে চাইলে আমাদের আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ মনোযোগ দিয়ে পড়ুন।
ঘরোয়া ভাবে ত্বকের যত্ন নেওয়ার উপায় জানুন
কেননা ত্বকের সমস্যার সমাধানে আপনাকে কখন কি পদক্ষেপ নিতে হবে সেটা সম্পর্কে আমাদের আর্টিকেলে বিস্তারিত আলোচনা করা আছে। পাশাপাশি ঘরোয়া উপায়ে কিভাবে আপনি ত্বকের সমস্যার সমাধান করতে পারবেন তার টিপস গুলো বর্ণনা করা আছে। ঘরে বসে ত্বকের দাগ দূর করার সহ ত্বকের যত্ন নেওয়ার কৌশল জানতে আমাদের এই আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ মনোযোগ দিয়ে পড়ুন।
সূচিপত্রঃ ঘরোয়া ভাবে ত্বকের যত্ন নেওয়ার উপায় জানুন

ত্বক

ত্বক হলো মেরুদন্ডী প্রাণীর বাহিরের অংশ। যা নরম আবরণ দ্বারা দেহকে আবৃত করে রাখে। ত্বক প্রাণীদের ভেতরের অংশকে রক্ষা করে থাকে। ত্বক মানবদেহের অনেক বড় অঙ্গ। বিশেষ করে স্তন্যপায়ী প্রাণীদের ত্বকে ছোট ছোট চুল বা লোম দিয়ে ঢাকা থাকে। ত্বক বাহিরের পরিবেশের সাথে দেহের সংযোগ স্থাপন করে থাকে এবং বাহ্যিক প্রভাবের বিরুদ্ধে দেহকে প্রাথমিকভাবে রক্ষা করে থাকে।
আবার রোগ সৃষ্টিকারী জীবাণুর বিরুদ্ধে লড়াই করে এবং শরীর থেকে অতিরিক্ত জল অপসারণ করে দেহকে সুস্থ রাখতে ত্বক অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। তাছাড়াও ত্বক কাজ করে তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রক, অন্তরক ও ভিটামিন ডি উৎপাদক হিসেবে। ত্বকের পুরুত্ব প্রাণী এবং অবস্থান ভেদে পরিবর্তিত হয়। মানুষের দেহের সবচাইতে পাতলা ত্বক হলো চোখের পাতা এবং পুরু ত্বক হল হাত-পায়ের পাতা। ত্বকের স্তর ২ টি, বাইরে (এপিডার্মিস) ও ভিতরে (ডার্মিস)। বাহিরের ত্বক পাতলা এবং ভেতরের ত্বক পুরু হয়।

ত্বকের সমস্যা গুলো কি তা জানুন

আমাদের দেশে ঋতু পরিবর্তনের সাথে সাথে মানুষের দেহের অনেক পরিবর্তন লক্ষ্য করা যায়। কেননা শীত, গ্রীষ্ম ও বর্ষার সময় মানুষের শরীরের যত্ন একটু বেশি নিতে হয়। কেননা দেহের বেশিরভাগ সমস্যা দেখা যায় এইসব মৌসুমে। যেসব সমস্যা বেশি লক্ষ্য করা যায় তা হলোঃ
  • ঘামাচি
  • ব্রণ
  • দাগ
  • সোরিয়াসিস
  • আর্সেনিকের কারণে চর্মরোগ
একজিমাতাই ঋতু পরিবর্তনের সাথে সাথে নিজের দেহের যত্নের পরিবর্তন করতে হবে। কেননা মৌসুম ভেদে আলাদা আলাদা সমস্যা দেখা দেয় শরীরে।

ঘরোয়া ভাবে ত্বকের যত্ন নেওয়ার উপায় জানুন

প্রতিটা মানুষ চাই দাগহীন, সুন্দর ও পরিষ্কার ত্বক। কেননা মানুষের ত্বকের কারণে তার দেহের সৌন্দর্য প্রকাশ পায়। আপনি যদি আপনার ত্বক সারা বছর সুন্দর মসৃণ ও পরিষ্কার রাখতে চান তার জন্য অবশ্যই আপনাকে পদক্ষেপ নিতে হবে। সারা বছর আপনি ঘরোয়া উপায়ে নিজের ত্বকের সৌন্দর্য ধরে রাখবেন কিভাবে তার টিপস নিয়ে আলোচনা করা হলোঃ
  • হলুদের গুঁড়া
হলুদের কোন বিকল্প নেই ত্বকের দাগ দূর করতে চাইলে। হলুদ এবং লেবুর রস মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে সেটি ব্যবহার করলে অনেক সহজেই ত্বকের দাগ নির্মূল করা সম্ভব। তার জন্য প্রথমে আপনাকে নিতে হবে ১ চা চামচ হলুদের গুঁড়ো তার সাথে ১ চা চামচ লেবুর রস। দুটো একসাথে মিশিয়ে হাত ও পায়ের আঙ্গুলে এবং দাগ যুক্ত জায়গায় লাগিয়ে দিয়ে ৩০-৪০ মিনিট পর লেবুর ছাল বা লেবুর রস দিয়ে ঘষে তুলে ফেলুন। তারপরে ঠান্ডা পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। নিয়মিত ব্যবহারের ফলে শরীরের দাগ খুব সহজেই দূর হয়ে যাবে।
  • অ্যালোভেরা
ত্বকের অনেক কাজ করে থাকে অ্যালোভেরা জেলি। অ্যালোভেরা জেলি বাইরে কিনতে পাওয়া যায় আবার ঘরেও তৈরি করা যায়। ঘরে তৈরি করার জন্য প্রথমে অ্যালোভেরার উপরের সবুজ অংশ কেটে নিয়ে ভেতরের জেলি বের করে নিতে হবে। সেই জেলে হাত-পা, মুখ এবং শরীরে যেসব জায়গায় দাগ রয়েছে সেসব জায়গায় লাগিয়ে দিয়ে পুরো ৩০ মিনিট পর ঠান্ডা ও পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। অ্যালোভেরার জেলি নিয়মিত ব্যবহারের ফলে শরীরের যেকোনো দাগ খুব সহজে দূর করা সম্ভব ও ত্বক মসৃণ রাখা সম্ভব।
  • তরমুজের রস এবং চালের গুড়ার ব্যবহার
তরমুজের রস এবং চালের গুড়া ব্যবহার করতে পারেন ত্বকের দাগ দূর করার জন্য। বিশেষ করে গ্রীষ্মকালে তরমুজের রসের ব্যবহার বেশি করা হয়। তরমুজের রস ও চালের গুড়া মিশ্রণটি তৈরি করতে প্রথমে তরমুজ কেটে কয়েক টুকরো ব্লেন্ড করে নিয়ে সমপরিমাণ চালের গুড়া মিশিয়ে নিতে হবে। তারপর হাত-পা এবং শরীরের প্রয়োজনীয় অংশে সেটা ব্যবহার করতে হবে। ১৫-২০ মিনিট রাখার পর আলতো করে ঘষে তুলে ফেলতে হবে। এরপর পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। ভালো সুফল পাওয়ার জন্য নিয়মিত ব্যবহার করতে হবে। তবে আপনার ত্বকের দাগ দূর হবে।
  • লেবু ব্যবহার করুন ত্বক সুস্থ রাখতে
মানুষের শরীরের যেকোনো দাগ দূর করতে অ্যালোভেরার মত লেবুও অনেক ভূমিকা রাখে। তার জন্য একটি লেবু কেটে নিয়ে হাত-পা সহ পুরো শরীরে অথবা দাগযুক্ত জায়গায় ঘষে নিন। তারপর ১৫-২০ মিনিট পরে পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। তাছাড়াও লেবুর রসের সাথে সামান্য পরিমাণে চিনি মিশিয়ে সেটা ত্বকে ব্যবহার করলে ত্বকের দাগ দূর করা সম্ভব। তবে লেবু এবং চিনির সংমিশ্রণ ব্যবহার করলে সেটি উঠানোর জন্য হালকা গরম পানি ব্যবহার করতে হবে।

তাছাড়া পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়ার কারণে ত্বকের ক্ষতি হতে পারে। আবার আপনি চাইলে লেবু আর মধু ব্যবহার করতে পারেন ত্বক সুস্থ রাখার জন্য। তার জন্য প্রয়োজনীয় লেবুর রসের সাথে ১ চা চামচ পরিমাণ মধু মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করতে হবে। এবার এটি ত্বক এবং দাগ যুক্ত জায়গায় আলতো ভাবে লাগিয়ে রেখে ৩০ মিনিট পর হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। ভালো সুফল পাওয়ার জন্য নিয়মিত ব্যবহার করতে হবে। লেবুর সাথে এগুলো মিশিয়ে আপনি চাইলে ঘরে বসে নিজের ত্বকের যত্ন নিতে পারেন।
  • ত্বকের যত্নে অলিভ অয়েল এবং চিনির ব্যবহার
আপনি চাইলে অলিভ অয়েল এবং চিনি ব্যবহার করে ঘরোয়া উপায়ে আপনার ত্বকের যত্ন করতে পারেন। তার জন্য আপনাকে অলিভ অয়েল এবং চিনি মিশিয়ে আপনার ত্বকে লাগিয়ে রাখুন এবং শুকানো পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। শুকিয়ে গেলে হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এই মিশ্রণটি প্রতি সপ্তাহে ১ বারের বেশি ব্যবহার করবেন না। অলিভ অয়েল এবং চিনি শরীরের যেকোন দাগ দূর করতে দ্রুত কাজ করে থাকে।
  • ত্বকের যত্নে টমেটোর ব্যবহার
প্রচুর মাত্রায় লাইকোপেন নামক উপাদান রয়েছে টমেটোতে। যা আপনার শরীরের মৃত কোষ সরিয়ে দেওয়ার পাশাপাশি ত্বকের দাগ দূর করতে কাজ করে থাকে। এবং খুব দ্রুত ত্বক উজ্জ্বল হতে সাহায্য করে। টমেটো ব্যবহারের জন্য প্রথমে যা করতে হবে ১-২ টা টমেটো ব্লেন্ডারে দিয়ে তার সাথে ২ চা চামচ লেবুর রস দিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। এবং সেই পেস্ট দাগ যুক্ত জায়গায় লাগিয়ে ২০ মিনিট অপেক্ষা করুন। এবং পরবর্তীতে সেটা ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।
  • ত্বকের যত্নে ডিমের ব্যবহার
ত্বক ফর্সা করার জন্য ডিমের কোন বিকল্প নেই। প্রথমে আপনাকে একটা ডিম ফাটিয়ে নিয়ে ভালোভাবে মিশাতে হবে। তারপর সেটি ত্বকের দাগ যুক্ত স্থানে আলতো ভাবে লাগিয়ে নিতে হবে। তার ১৫-২০ মিনিট পরে ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। নিয়মিত ব্যবহারের ফলে আপনি খুব সহজেই ত্বকের দাগ ও ব্রণের দাগ দূর করতে পারবেন।
  • ত্বকের যত্নে গোলাপ জলের ব্যবহার
গোলাপজল ত্বকের ভিতর থেকে ময়লা দূর করে ত্বককে পরিষ্কার রাখে। ফলে ত্বক সুন্দর ও মসৃণ থাকে। তার জন্য আপনাকে সমপরিমাণ গোলাপজল ও কাঁচা দুধ মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করতে হবে। তারপর সেটা রাতে ঘুমানোর আগে দাগ যুক্ত স্থানে লাগিয়ে দিতে হবে। এরপর সকালে ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। খুব দ্রুত ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করার জন্য গোলাপজল নিয়মিত ব্যবহার করুন।
  • ত্বকের যত্নে ডাবের পানি
ত্বককে মসৃণ ও সুন্দর করার জন্য ডাবের পানি খুবই উপকারী উপাদান। এর জন্য আপনাকে ডাব সংগ্রহ করে তার পানি দিয়ে দিনে ২ বার ত্বক ধুয়ে ফেলতে হবে। তার পাশাপাশি ডাবের পানি ব্যবহার করলে শরীরের যে কোন দাগ দূর করা সম্ভব হয়।
  • ত্বকের যত্নে খাবার সোডা ও পানির ব্যবহার
ত্বকের দাগ দূর করার জন্য খাবার সোডা ও পানি একত্রে মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন। তারপর সেটা দাগযুক্ত জায়গায় ব্যবহার করুন। ব্যবহারের ১৫ মিনিট পর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। ভালো ফলাফল পাওয়ার জন্য নিয়মিত সেই পেস্ট ব্যবহার করুন।

শেষ কথা

সুপ্রিয় পাঠক, ঘরোয়া ভাবে ত্বকের যত্ন নেওয়ার উপায় জানুন আমাদের আর্টিকেলে। আমাদের আর্টিকেলটি আপনার কাছে ভালো লেগে থাকলে এটি অন্যদের সাথে শেয়ার করুন। যেকোনো বিষয়ে সঠিক তথ্য জানার জন্য আমাদের ওয়েবসাইটের সাথেই থাকুন। আমাদের আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি আইটির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url